দাম্পত্য জীবনের সমস্যাগুলো যাকে তাকে বলে বেড়াবেন না

প্রতিটি দম্পতি তাদের বিবাহিত জীবনে কখনো না কখনো বিভিন্ন মাত্রার টানা-পোড়েনের মুখোমুখি হয়। দয়া করে দাম্পত্য জীবনের সমস্যাগুলো যাকে তাকে বলে বেড়াবেন না। এই কাজটা একেবারেই করবেন না, এটা অন্যায়। নিজের প্রতি অন্যায় এবং আপনার স্বামী/স্ত্রীর প্রতি অন্যায়। সর্বজ্ঞ আল্লাহ্ আজওয়াজাল স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক বর্ণনা করার সময় বলেছেন, "তারা তোমাদের পরিচ্ছদ এবং তোমরা তাদের পরিচ্ছদ"। মনে রাখবেন, পোশাক আমাদেরকে আরাম, স্বস্তি ও পরিতৃপ্তি দেয়ার পাশাপাশি আমাদের দৈহিক ত্রুটি বা দুর্বলতাগুলোকেও ঢেকে রাখে!

হয়ত আপনি আপনার স্বামী/স্ত্রীর উপর যে কোন কারনেই হোক অসন্তুষ্ট বা হতাশ। যদি এমন হয় যে দুজন মিলে কোনভাবেই সেই সমস্যার সমাধান করতে পারছেন না। তাহলে বিশ্বাসী, অভিজ্ঞ এবং ঘনিষ্ঠ কাউকে একান্তে, গোপনে আপনার সমস্যা খুলে বলুন। এবং নিশ্চিত করুন যেন সেই ব্যক্তি এই ঘটনাটি সম্পর্কে গোপনীয়তা বজায় রাখতে সক্ষম হয়।

কোন একটা সমস্যা হলো, সাথে সাথে স্মার্টফোন দিয়ে ফেইসবুকে একটা স্ট্যাটাস পোস্ট করে বসলেন। এটা কোন 'স্মার্ট কাজ' না বরং 'ডাম্ব কাজ' হলো। এই ধরনের আচরণে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হবেন আপনি নিজে! কারণ, ধীরে ধীরে মানুষ আপনার উপর থেকে শ্রদ্ধা হারাবে। আপনার এই ধরনের স্ট্যাটাস দেখে লোকে মনে মনে বলবে, "কি ধরনের ছেলে/মেয়ে এটা? নিজের স্ত্রী/স্বামী সম্পর্কে এইসব লেখে? ছিঃ!" আপনি হয়ত এই ধরনের স্ট্যাটাস পোস্ট করে লোকের সহানুভূতি চাইছেন, কিন্তু এইসব ক্ষেত্রে সহানুভূতির বদলে আপনি নিজের মর্যাদা হারাবেন। কিছু কিছু মানুষ পাবেন যারা আপনাকে 'আপু'/ 'ভাইয়া' সম্বোধন করে সস্তা কিছু মন্তব্য করবে, কিন্তু তারা প্রকৃতপক্ষে আপনার সমস্যার আগুনে ঘি ঢালবে!

আপনার বৈবাহিক জীবনের নিভৃত কথাগুলো যথাসম্ভব নিজেদের ভেতর সীমাবদ্ধ রাখুন। দয়া করে এটাকে পাবলিক স্পেকটাকলে পরিণত করে নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মারবেন না

-- সেফাত মাহজাবিন

No comments:

Post a Comment